বানিয়াচংয়ে উন্নয়ন কাজ সম্পন্ন করায় আব্দুল মজিদ খান এমপিকে সংবর্ধনা

নিজস্ব প্রতিনিধি ॥ হাওরাঞ্চল খ্যাত বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় গত ৯ বছরে ব্যাপক উন্নয়ন কাজ সম্পন্ন করায় জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের প্যানেল স্পীকার এডভোকেট আব্দুল মজিদ খান এমপিকে গণসংবর্ধনা প্রদান করেছেন বানিয়াচং উপজেলার ৩নং দক্ষিণ পূর্ব ইউনিয়নের ছিলাপাঞ্জা এলাকাবাসী। গতকাল রবিবার বিকালে ছিলাপাঞ্জা বাজার মাঠে তাকে এ সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। এতে দলমত নির্বিশেষে সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন। এ সময় তারা এডভোকেট আব্দুল মজিদ খান এমপি’র ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ডের বর্ণনা দিয়ে আগামীতেও তাকে নির্বাচিত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। বক্তারা বলেন, স্বাধীনতার ৪৭ বছরে যে উন্নয়ন হয়নি গত ৯ বছরে এমপি এডভোকেট মোঃ আব্দুল মজিদ খান এলাকার সে উন্নয়ন করেছেন। (শেষ পৃষ্ঠার পর) এক সময় ৬ মাস পায়ে হেটে আর ৬ মাস নৌকায় চলাচল করতেন হাওর অঞ্চলবাসী। কিন্তু এডভোকেট আব্দুল মজিদ খান এমপি নির্বাচিত হওয়ার পর এখন আর নৌকায় চড়তে হয় না। মানুষজন বারো মাসই গাড়িতে করে চলাচল করতে পারছেন। এতে করে জীবনযাত্রার মান উন্নয়নের সাথে সাথে বেড়েছে শিক্ষার হার। শহরের জীবনমানের সাথে তাল মিলিয়ে গ্রামাঞ্চলের ছেলে-মেয়েরাও উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে পংকজ কান্তি রায় নিধু বলেন, আমার জীবদ্দশায় বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ পাকা রাস্তা দিয়ে গাড়ি চলাচল দেখবো তা কল্পনাও করিনি। কিন্তু এমপি মজিদ খান রাস্তাঘাট নির্মাণের মধ্য দিয়ে হাওর অঞ্চলবাসীর মন জয় করে নিয়েছেন। এ সময় আগামী নির্বাচনে এ সকল উন্নয়ন কাজের বিনিময়ে এমপি মজিদ খানকে হাওর অঞ্চলবাসী ভোট দেবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সর্দার অমৃত মিয়ার সভাপতিত্বে ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এ জেড এম উজ্জ্বলের বাজার পরিচালনা পরিচালনায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সংবর্ধিত ব্যক্তিত্ব এডভোকেট আব্দুল মজিদ খান এমপি। এ সময় তিনি আবেগাল্পুত হয়ে বলেন, আমি আপনাদের একজন সেবক হয়ে নিজেকে ধন্য মনে করেছি। আপনাদের এ ভালবাসার ঋণ আমি কখনো শোধ করতে পারবো না। তবে যতদিন বেচে থাকবো সুখে-দুঃখে হাওর অঞ্চলবাসীর পাশে থাকার চেষ্টা করবো। তিনি আরো বলেন, এত উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার থাকার কারণে। শেখ হাসিনার সরকার না হলে এত উন্নয়ন করা সম্ভব হতো না। আমি শেখ হাসিনার সরকারের সময়ে এমপি হতে পেরেছি বলে নিজেকে ধন্য মনে করি। এ সকল উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে তিনি আবারো নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার আহবান জানান। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ হারুন মিয়া, সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী, সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এনামুল হোসেন খান বাহার, সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া লিলু, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক আবুল হোসেন, জনাব আলী কলেজের সাবেক ভিপি শাহ নেওয়াজ ফুল মিয়া। বক্তব্য রাখেন সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সাবেক উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান প্রিয়তোষ রঞ্জন দেব উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আরজু মিয়া, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল কাদির তুফানী, আওয়ামী লীগ নেতা কাজল চ্যাটার্জী, সর্দার আদর আলী, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আলমগীর হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল মিয়া, উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আশরাফ সোহেল, সাধারণ সম্পাদক আবু আশরাফ চৌধুরী বাবু, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এজেডএম উজ্জ্বল, সাধারণ সম্পাদক রফিকুল আলম চৌধুরী রিপন ও ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া খোকন প্রমুখ। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন মাওলানা মোফাজ্জল হোসেন এবং গীতা পাঠ করেন বিবেকানন্দ দাস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *