ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে মলম পার্টি তৎপর ॥ ব্র্যাক কর্মকর্তার সর্বস্ব লুট

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে মলম পার্টির অপতৎপরতা বৃদ্ধি পেয়েছে। মহাসড়কের গুরুত্বপূর্ণ স্পটে এরা উৎপেতে থাকে। মহাসড়কে গাড়ি থামানোর স্থানে বা টার্মিনালে ভ্রাম্যমান ফেরীওয়ালার ছদ্মবেশে থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে মানুষের সর্বস্ব। ঘরে ফেরা মানুষের পাশাপাশি গরুর পাইকার, চাকুরিজীবি, ব্যবসায়ীরা হচ্ছে এ চক্রের টার্গেট। এ ছাড়া চলন্ত বাসে হকার বেশে টার্গেট করা লোকের সাথে সম্পর্ক গড়ে তোলে এরা। হকারের কাছ থেকে কিছু খেয়ে ওই ব্যক্তি অচেতন হয়ে পড়লে তারা সবকিছু নিয়ে সটকে পড়ে। ঈদের আগে এ সংখ্যা আরও বেড়ে যায়। এসব ঘটনার শিকার অনেকে দুই থেকে তিন দিন পর্যন্ত অচেতন থাকেন, অনেকের আবার মৃত্যুও হয়। তবে হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার পরিসংখ্যানের সাথে থানায় মামলা হওয়ার পরিসংখ্যানের মিল নেই। গতকাল শনিবার ব্র্যাক হতদরিদ্র কর্মসূচি প্রকল্পের শায়েস্তাগঞ্জ শাখার ম্যানাজার খালেদ মাহমুদ ওরফে নুরানী (৩৫) ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের আউশকান্দি এলাকায় একটি লোকাল বাসে মলম পার্টির খপ্পরে পড়েন। ওই চক্রটি তার কাছ থেকে গরু কেনার টাকা হাতিয়ে নেয়। এক পর্যায়ে তিনি অচেতন হয়ে পড়লে তাকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হবিগঞ্জ ব্র্যাক আঞ্চলিক অফিসের ব্যবস্থাপক আনোয়ারুল ইসলাম মলম পার্টি তৎপর জানান, খালেদ মাহমুদ গরু কেনার জন্য পানি উমদা এলাকার সরকার বাজারে যাচ্ছিলেন। দুপুরের দিকে তিনি খবর পান খালেদ মাহমুদ মলম পার্টির কবলে পড়েছেন। পরে তিনি লোক পাঠিয়ে খালেদ মাহমুদকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। তিনি জানান, মলম পার্টির সদস্যরা গরু কেনার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। গতকাল শনিবার রাত ৮টায় হাসপাতালের মেডিসিন ওয়ার্ডে গিয়ে দেখা যায়, খালেদ মাহমুদের জ্ঞান ফিরে আসেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *