মাধবপুরে মাদক ব্যবসা জমজমাট ফেনসিডিলসহ মহিলা আটক

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মাধবপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী পাহাড় ও চা বাগান বেষ্টিত তেলিয়াপাড়া ও ইটাখোলায় হাতের নাগালে পাওয়া যাচ্ছে মাদক। এলাকাটি মাদক চোরাকারবারি ও অপরাধীদের স্বর্গরাজ্যে পরিণত হয়েছে। এহেন পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষ তাদের সন্তান নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। প্রতিদিন এলাকায় কোনো না কোনো অপরাধ হচ্ছে। তবে অপরাধের মূল হোতারা আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে ধরা পড়ছে না। মাঝে মধ্যে কিছু অবৈধ মাদকদ্রব্য উদ্ধার হলেও এর সাথে জড়িতরা থেকে যাচ্ছে আড়ালে। গতকাল সোমবার দুপুরে সাথী আক্তার (৩২) নামের এক নারী মাদক বিক্রেতাকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় তার কাছ থেকে ২৫ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়।গতকাল সোমবার দুপুরে মাধবপুর পৌর এলাকার পশ্চিম মাধবপুর থেকে তাকে আটক করেন মাধবপুর থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) মমিনুল ইসলাম। সাথী ওই এলাকার কাজল মিয়ার স্ত্রী। আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে এসআই মমিনুল জানান, সাথী দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় মাদক বিক্রি করে আসছিল। পুলিশ গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তার বাড়িতে অভিযান চালায়। এ সময় ২৫ বোতল ভারতীয় ফেনসিডিলসহ সাথীকে আটক করা হয়। জানা যায়, মাদকের কেনাবেচা, সেবন, পরিবহন ও ব্যবসায়ীর সংখ্যা এ এলাকায় উদ্বেগজনকভাবে বেড়ে চলেছে। চা শ্রমিকদের সন্তানরাও এখন মাদকের সাথে জড়িয়ে পড়েছে। এদের সামাল দিতে কর্তৃপক্ষ হিমশিম খাচ্ছে। মাদক ব্যবসায়ীরা তেলিয়াপাড়া ২০নং ও সাতছড়ি সীমান্ত দিয়ে ভারতীয় মাদক বাংলাদেশে এনে তেলিয়াপাড়া চা বাগান ও রসুলপুর এলাকায় মজুদ করে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে ফাঁড়ির সরু পথে দেশের বিভিন্ন স্থানে পাচার করছে। তেলিয়াপাড়া ও ইটাখোলা এলাকায় বহু দাগি মাদক চোরাকারবারি রয়েছে, যারা এখনও গ্রেফতার হয়নি। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পদ-পদবি ব্যবহার করে এক শ্রেণির মাদক ব্যবসায়ী তেলিয়াপাড়া এলাকায় মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করছে। মাদক ব্যবসার বিস্তৃতি বেড়ে যাওয়ায় কোমলমতি ছাত্রছাত্রী উঠতি বয়সের তরুণ-তরুণীরা ইয়াবার ছোবলে ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। মাদকসেবীরা তেলিয়াপাড়া চা বাগান ও ইটাখোলায় মাদক সেবন করে থাকে। বিষয়টি সাধারণ মানুষকে উদ্বীগ্ন করে তোলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *